শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৫১ পূর্বাহ্ন
নোটিশ ::
বাংলাদেশ সারাবেলা ডটকমে আপনাদের স্বাগতম। সারাদেশের জেলা,উপজেলা ও বিশ্ববিদ্যালয়ে  প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে, আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন - ০১৭৯৭-২৮১৪২৮ নাম্বারে
সংবাদ শিরোনাম ::
ফরিদপুরে সাম্প্রদায়িক হামলাকারী সন্ত্রাসী দের বিচারের দাবিতে ছাত্র ইউনিয়নের মশাল মিছিল সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে পীরগঞ্জে মানববন্ধন ও সম্প্রীতি র‌্যালি বশেমুরবিপ্রবিতে শিক্ষকের মৃত্যুতে শিক্ষক সমিতি কর্তৃক স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত অপেক্ষার প্রহর শেষে অবশেষে চালু হচ্ছে স্বপ্নের পায়রা সেতু সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিরুদ্ধে পাবিপ্রবি শিক্ষার্থীর একক অবস্থান কর্মসূচি সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে পানছড়িতে আওয়ামী লীগের ‘সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি শোভাযাত্রা’ সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে পাবিপ্রবি ছাত্রলীগের সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত দুমকীতে শেখ রাসেল এর জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও আলোচনা সভা মন্দির-বাড়িঘরে হামলা, অগ্নিসংযোগ ও হত্যা’র প্রতিবাদে খাগড়াছড়িতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ   শেখ রাসেল দিবস উপলক্ষে পটুয়াখালীর দুমকীতে তালের চারা রোপন বড়াইগ্রাম পৌরসভায় জেন্ডার ও জেন্ডার ভিত্তিক সহিংসতা বিষয়ক কর্মশালা শার্শা সীমান্ত থেকে পিস্তল-গুলি ও মাদক উদ্ধার করেছে বিজিবি নোবিপ্রবিতে গুচ্ছ পদ্ধতির ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন  সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিরুদ্ধে নোবিপ্রবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত ফরিদপুরে আজ দাবা লীগের পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান সম্পূর্ণ  সাংবাদিক সুরক্ষা আইন প্রনয়নের দাবীতে দেশব্যাপী প্রধানমন্ত্রীর নিকট স্মারকলিপি প্রদান ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের পাশে ইবি ছাত্রলীগ নেতা প্রথমবারের মতো ইবিতে গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত জাককানইবি কুমিল্লা এসোসিয়েশনের নতুন নেতৃত্বে মুজিব ও মহিন ইবি রোভার স্কাউটের তিন দিনব্যাপী তাঁবুবাস ও দীক্ষা ক্যাম্প মিসাবের উদ্যোগে ব্লাড গ্রুপিং ও ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা উপলক্ষে নোবিপ্রবিতে মতবিনিময় সভা দুমকীতে ৩ কিলোমিটার রাস্তার বেহাল দশা ইবি বঙ্গবন্ধু হল ডিবেটিং সোসাইটি’র নতুন কমিটি গঠন পটুয়াখালীর দুমকীতে চার মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার

খেলার মাঠ খননে জবি শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ

মোঃ নূর উদ্দীন মুন্না, জবি প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ২৬ ০০০ বার

পুরান ঢাকার ধূপখোলা মাঠের একাংশে খেলাধুলা করেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। সেখানেই মার্কেট নির্মাণের জন্য রাতের অন্ধকারে খোঁড়াখুঁড়ি শুরু করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন।

রবিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) দিবাগত গভীর রাতে সিটি করপোরেশনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এই কাজ করে। সোমবার সকালে ঘটনা জানার পর ক্ষোভ জানান জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। ছাত্র ইউনিয়ন ও ছাত্রলীগের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার নেতারাও প্রতিবাদ জানিয়েছেন। এ জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ‘অদক্ষতাকে’ দায়ী করেছেন তারা। অপর দিকে কাজ থামাতে আইনি প্রক্রিয়ায় যাওয়ার কথা বলছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল বলেন, “ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনকে অনেকবার বলা হয়েছে, কিন্তু ওরা যেহেতু এরকম পদক্ষেপ নিয়ে ফেলেছে তাই এ ব্যাপারে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের সাথে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।”

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, ১৯৮৪ সালে তৎকালীন রাষ্ট্রপতি শিক্ষার্থীদের খেলাধুলার জন্য নিজস্ব কোনো মাঠ না থাকায় ধূপখোলা খেলার মাঠটি তিন ভাগ করে এক ভাগ তৎকালীন সরকারি জগন্নাথ কলেজকে ব্যবহার করার জন্য মৌখিকভাবে অনুমতি দেন। তখন থেকেই প্রতিষ্ঠানটি খেলার মাঠ হিসেবে ধূপখোলা মাঠটিকে ব্যবহার করছে। এই মাঠেই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, মূলত মাঠ তিনটি অংশে বিভক্ত, যার অর্ধেক অংশ ইস্ট অ্যান্ড ক্লাবের নিয়ন্ত্রণে এবং বাকি অংশ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ও সিটি করপোরেশনের নিয়ন্ত্রণে। সিটি করপোরেশনের অংশে বাইরে থেকে মাটি এনে রাখা হয়েছে। চলছে স্থাপনা নির্মাণের কাজ। ক্লাবের মাঠ উন্নয়নকাজ চলছে। আর বিশ্ববিদ্যালয়ের মাঠে খনন শুরু হয়েছে।

তবে স্থাপনা নির্মাণকাজে সংশ্লিষ্ট কেউ গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে চাননি। পরে প্রকল্পের পরিচালক আবুল হাশেমের সঙ্গে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি ব্যস্ততার কথা বলে ফোন রেখে দেন।

মাঠের এই খনন সম্পর্কে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫ম আন্তঃ বিশ্ববিদ্যালয় ফুটবল প্রতিযোগীতার চ্যাম্পিয়ন ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগ থেকে একজন শিক্ষার্থী বলেন, “আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের একটিমাত্র মাঠ, এইখানেই আমরা খেলাধুলা ও প্রশিক্ষণ করি। এইখান থেকেই হয়ত উঠে আসবে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের খেলোয়াড়। কিন্তু এখন এই মাঠ দখলে চলে গেলে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্তিত্ব হারিয়ে যাবে এবং ক্রীড়া অংশে বাংলাদেশ আরো পিছিয়ে পরবে।”

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার কামালউদ্দীন আহমেদ বলেন, ‘আমাদের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছিলাম। রাষ্ট্রপতির মৌখিক অনুমতি ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে কোনো কাগজপত্র না থাকায় সিটি করপোরেশন তা গুরুত্ব দেয়নি। এখন আইনি প্রক্রিয়ায় গিয়ে কাজ থামানো যায় কি না, তা আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..