শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:৩৭ অপরাহ্ন
নোটিশ ::
বাংলাদেশ সারাবেলা ডটকমে আপনাদের স্বাগতম। সারাদেশের জেলা,উপজেলা ও বিশ্ববিদ্যালয়ে  প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে, আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন - ০১৭৯৭-২৮১৪২৮ নাম্বারে
সংবাদ শিরোনাম ::
কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা পৌরসভার রাস্তা প্রশস্তকরণ যানজট নিরসন বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত আজ কুষ্টিয়ার তিন উপজেলায় হানাদার মুক্ত দিবস জীবন যুদ্ধে ঘুরে দাঁড়ানো নারী চকরিয়ার শারমীন জান্নাত ফেন্সি কক্সবাজারে আন্তর্জাতিক ‘ফ্লিট রিভিউ’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী চকরিয়ার হারবাংয়ের গয়ালমারা’য় বনবিভাগের জায়গা দখল করে বহুতল ভবন নির্মাণ পাবিপ্রবিতে বাংলা বিভাগের আয়োজনে সাংস্কৃতিক সপ্তাহ ও বিজয় উৎসব শুরু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-ত্রাণ ও দুর্যোগ বিষয়ক সম্পাদক চকরিয়ার সালমান সাদিক কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস পালিত জামিনে মুক্ত হওয়ার পর ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত জিয়া উদ্দিন বাবুলু ভেড়ামারা অনলাইন প্রেসক্লাবের সাথে ওসি’র মতবিনিময় ভেড়ামারায় নবাগত ওসি রফিকুল ইসলামের যোগদান সোহরাওয়ার্দী কলেজ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি নির্বাচিত হলেন নোয়াখালীর রবি আলম পাবিপ্রবি শাখা ছাত্রলীগের নবনির্বাচিত সভাপতির বর্ন্যাঢ বরণ প্রধানমন্ত্রীর কক্সবাজার আগমন উপলক্ষে চকরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের প্রস্তুতি সভা সম্পন্ন চকরিয়ায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে হাতি “সৈকত বাহাদুরের” মৃত্যু বেনাপোলে মদ গাঁজা ফেনসিডিলসহ আটক ৩ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য হলেন পাবিপ্রবির সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সাব্বির আহমেদ হারিয়েছে চকরিয়ায় টিভিএসের নতুন শোরুম উদ্বোধন চকরিয়া সিটি হাসপাতালে ঠোঁটকাটা ও তালুকাটা রোগীদের বিনামূল্যে চিকিৎসা প্রদান কার্যক্রম সম্পন্ন বশেমুরবিপ্রবিতে ব্রাজিল সমর্থকদের আনন্দ মিছিল নিয়মবহির্ভূত নির্বাচনের তারিখ দেয়ার অভিযোগ কুবি শিক্ষক সমিতির বিরুদ্ধে আইন ভঙ্গ;বশেমুরবিপ্রবিতে উপাচার্যসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে হাইকোর্টের রুল জারি পাবিপ্রবিতে জেলা রোভারমেট ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত

প্রতিনিয়ত বাড়ছে দূর্ঘটনা, উদাসীন পৌর প্রশাসন

মোঃ কামাল উদ্দিন, কক্সবাজার প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ১০৭ ০০০ বার

পৌরশহরের ব্যস্ততম ও গুরুত্বপূর্ণ বেশির ভাগ সড়কের ফুটপাত এখন ফল ও বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের দখলে। ফুটপাত দখল করে বিভিন্ন ব্যবসায়ীরা মালামাল নিয়ে বেচাকেনা করছেন। টি-স্টল থেকে শুরু করে ভাজাপোড়া খাবারের দোকানও গড়ে তোলা হয়েছে সেখানে। এ ছাড়া কিছু ফুটপাত ছাপিয়ে সড়কের ওপরও ব্যবসা খুলে বসেছেন তাঁরা। এভাবে ফুটপাত দখল হওয়ায় পথচারীরা সড়কের ওপর দিয়ে চলাচল করতে বাধ্য হচ্ছে। এর ফলে ওই সব সড়কে ছোটখাটো দুর্ঘটনার শিকার হওয়া ছাড়াও প্রতিনিয়ত যানজট পোহাতে হচ্ছে পৌরবাসীকে। এ কারণে ট্রাফিকব্যবস্থা ভেঙে পড়াসহ নগরীর সৌন্দর্যও হারাতে বসেছে। চকরিয়া পৌর প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের উদাসীনতায় দখলবাজরা বেপরোয়া বলে অভিযোগ উঠেছে। গত বুধ ও বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, পৌরশহরের জনতা মার্কেট রোড, সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয় রোড, নিউ মার্কেট রোড, কাঁচা বাজার বিমান বন্দর রোড, হাসপাতাল সড়ক ও থানার রাস্তা মাথা আরাকান সড়ক পর্যন্ত সড়কের দুই পাশে ফুটপাত দখল করে বিভিন্ন ধরনের মালামাল নিয়ে ব্যবসা খুলে বসা হয়েছে। পৌরশহরের এসব সড়ক অত্যন্ত ব্যস্ততম বাণিজ্যিক এলাকা ও গুরুত্বপূর্ণ সড়ক হিসেবে বিবেচিত। এই সড়কগুলোয় প্রতিদিন শত শত বিভিন্ন প্রকার যানবাহন ও হাজারো পথচারী চলাচল করে। ফুটপাতগুলো দখল হয়ে যাওয়ায় পথচারীরা সড়কের ওপর দিয়ে চলাচল করতে বাধ্য হচ্ছে। এর ফলে প্রায় প্রতিদিন ছোটখাটো দুর্ঘটনাসহ যানজটে নাকাল হচ্ছে পৌরবাসী। পৌরশহরের থানা রাস্তার মাথা থেকে জনতা মার্কেট পর্যন্ত রোডের দুই পাশের সড়কের ফুটপাত ও ফুটপাতসংলগ্ন সড়কের ওপর কাপড়, জুতা-স্যান্ডেল, বিভিন্ন ধরনের তৈজসপত্র, ফলের দোকান, মনোহারি সামগ্রী, টি-স্টল, পুরি-শিঙাড়া, ঘড়ি মেরামত, মাছ-তরকারিসহ বিভিন্ন ধরনের মালামাল নিয়ে দিব্যি ব্যবসা করে চলেছে। পৌরশহরের এতগুলো ব্যস্ততম সড়কের ফুটপাত ও সড়কের অংশবিশেষ দখল হওয়ায় যানবাহন ও পথচারী চলাচলে মারাত্মক বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে। এ সময় ফুটপাতের ব্যবসায়ী বেশ কয়েকজনের সঙ্গে আলাপ করলে তাঁরা জানান, ফুটপাত ব্যবসায়ীরা প্রতিদিন কিছু স্থানীয় সরকার দলীয় নেতাদের একটি নির্দিষ্ট অঙ্কের অর্থ দিয়ে ব্যবসা করার সুযোগ পাচ্ছেন। পুলিশ বা অন্য কোনো ব্যক্তি তাঁদের কাছ থেকে টাকা আদায় করে না। এ ছাড়াও ফুটপাতের ব্যবসা নিয়ে একটি সিন্ডিকেট গড়ে উঠেছে। এদিকে, এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন ফল ব্যবসায়ী সমিতির নেতার সাথে কথা বলে জানা যায়, তারা পৌর কর্তৃপক্ষকে ম্যানেজ করেই তাদের কার্যক্রম চালাচ্ছে। তারা দাম্ভিকতার সাথে আরো বলেন, পৌর কর্তৃপক্ষকে টাকা না দিলে একদিনও ফুটপাত দখল করে ব্যবসা করতে দিবে না। পৌরশহরের ফুটপাত অবৈধভাবে দখল করে বিভিন্ন দোকানপাট গড়ে তোলার বিষয়ে চকরিয়া পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরীর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, শিগগিরই অবৈধভাবে ফুটপাত দখলকারীদের উচ্ছেদ করার উদ্যোগ নেওয়া হবে। প্রয়োজন উপজেলা প্রশাসনের সাথে কথা বলে অতিশীঘ্রই মোবাইল পরিচালনা করা হবে। আর ফল ব্যবসায়ী সমিতির নেতারা পৌর কর্তৃপক্ষকে যে ম্যানেজ করার কথাটি বলেছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। ফুটপাত ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে ফুটপাত দখলে রাখতে দিয়েছি এমন প্রমাণ যদি কেউ দিতে পারে তাহলে আমি নিজে থেকেই সেচ্ছায় মেয়র পদ থেকে পদত্যাগ করবো। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জেপি দেওয়ান বলেন, পৌরসভার মেয়র যদি আমাদের সহযোগিতা চায় তাহলে আমরা সহযোগিতা করবো। তবে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা কোন স্থায়ী সমাধান নয়। কী করলে স্থায়ীভাবে এটার সমাধান করা যায় তা খুঁজে বের করতে হবে। তবে মেয়র সাহেব সহযোগিতা চাইলে আমরা মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করতে পারি।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..