মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ০৫:০৯ অপরাহ্ন
নোটিশ ::
বাংলাদেশ সারাবেলা ডটকমে আপনাদের স্বাগতম। সারাদেশের জেলা,উপজেলা ও বিশ্ববিদ্যালয়ে  প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে, আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন - ০১৭৯৭-২৮১৪২৮ নাম্বারে
সংবাদ শিরোনাম ::
পাবিপ্রবিতে বাংলা বিভাগের আয়োজনে সাংস্কৃতিক সপ্তাহ ও বিজয় উৎসব শুরু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-ত্রাণ ও দুর্যোগ বিষয়ক সম্পাদক চকরিয়ার সালমান সাদিক কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস পালিত জামিনে মুক্ত হওয়ার পর ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত জিয়া উদ্দিন বাবুলু ভেড়ামারা অনলাইন প্রেসক্লাবের সাথে ওসি’র মতবিনিময় ভেড়ামারায় নবাগত ওসি রফিকুল ইসলামের যোগদান সোহরাওয়ার্দী কলেজ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি নির্বাচিত হলেন নোয়াখালীর রবি আলম পাবিপ্রবি শাখা ছাত্রলীগের নবনির্বাচিত সভাপতির বর্ন্যাঢ বরণ প্রধানমন্ত্রীর কক্সবাজার আগমন উপলক্ষে চকরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের প্রস্তুতি সভা সম্পন্ন চকরিয়ায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে হাতি “সৈকত বাহাদুরের” মৃত্যু বেনাপোলে মদ গাঁজা ফেনসিডিলসহ আটক ৩ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য হলেন পাবিপ্রবির সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সাব্বির আহমেদ হারিয়েছে চকরিয়ায় টিভিএসের নতুন শোরুম উদ্বোধন চকরিয়া সিটি হাসপাতালে ঠোঁটকাটা ও তালুকাটা রোগীদের বিনামূল্যে চিকিৎসা প্রদান কার্যক্রম সম্পন্ন বশেমুরবিপ্রবিতে ব্রাজিল সমর্থকদের আনন্দ মিছিল নিয়মবহির্ভূত নির্বাচনের তারিখ দেয়ার অভিযোগ কুবি শিক্ষক সমিতির বিরুদ্ধে আইন ভঙ্গ;বশেমুরবিপ্রবিতে উপাচার্যসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে হাইকোর্টের রুল জারি পাবিপ্রবিতে জেলা রোভারমেট ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত ভেড়ামারা থানায় নবাগত ওসি (তদন্ত) মোঃ আকিব এর যোগদান এপেক্স ক্লাব চকরিয়া সিটির প্রেসিডেন্ট মহসিন ও রিয়ান সেক্রেটারি নির্বাচিত পাবনায় উত্তরবঙ্গ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত ইউজিসির নিয়োগ ও পদোন্নতি-সংক্রান্ত নির্দেশিকার সংশোধনের দাবিতে বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষকবৃন্দের মানববন্ধন ভেড়ামারা থানা পুলিশের সহায়তায় মৃত্যুর হাত থেকে রক্ষা পেলেন এক মহিলা

বনবিট কর্মকর্তাকে ম্যানেজ করেই চলছে বনভূমি দখল

মোঃ কামাল উদ্দিন, কক্সবাজার প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৪ অক্টোবর, ২০২২
  • ৪২ ০০০ বার

চকরিয়া উপজেলার হারবাং ইউনিয়নের ইছাছড়ি ৯নং ওয়ার্ড এলাকায় চুনতি বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্যের আওতাধীন হারবাং বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য বনবিটের জায়গা দখল করে নির্মাণ করা হচ্ছে বাড়ি ও মুরগীর খামার। সরেজমিন দেখা যায়, হারবাং ইউনিয়নের ইছাছড়ি ৯নং ওয়ার্ডের পেট্রোলপাম্প সংলগ্ন এলাকার আবু সালেহ নামের এক ব্যক্তির নেতৃত্বে চলছে বাড়ি ও মুরগির খামার নির্মাণ। এ বিষয়ে আবু সালেহের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, হারবাং বন্যপ্রার্ণী অভয়ারণ্যের জায়গা হলেও তা আমরা অনেক আগে থেকেই বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্যের বনবিট কর্মকর্তাকে ম্যানেজ করে দখলে আছি। তিনি আরো বলেন, বাড়ি এবং মুরগির খামারটা মূলত আমার বোন তৈরি করতেছে। এসব করতেও বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্যের বনবিট কর্মকর্তাকে দিতে হয়েছে মোটা অংকের চাঁদা। এদিকে, এ বিষয়ে জানতে আবু সালেহের বোন জানান, তারা এ জায়গাটি ৫/৬ বছর ধরে দখলে আছি। বাড়ির নির্মাণ কাজ প্রায় শেষ হয়ে গেছে। তবে ব্যবসার উদ্দেশ্যে মুরগির খামারটি নির্মাণ করতেছি। কিন্তু এখানে বাড়ি এবং মুরগির খামারটি নির্মাণ করার আগেই চাঁদা পৌঁছে দিতে হয়েছে হারবাং বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য বনবিট কর্মকর্তার কাছে। তা না হলে হারবাং বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্যের বনবিট কর্মকর্তা একটি খুঁটিও স্থাপন করতে দিবেন বলে জানান তিনি। তিনি আরো বলেন, তাদের চাঁদা না দিয়ে যদি কোন কিছু নির্মাণ করা হয় তাহলে তারা মূহুর্তের মধ্যেই ভেঙে তছনছ করে দিবে। তবে আমাদের বাড়ি এবং মুরগির খামার নির্মাণের জন্য বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্যের বনবিট কর্মকর্তাকে মোটা অংকের চাঁদা দিয়ে ম্যানেজ করেছে আমার ভাই আবু সালেহ। অন্যদিকে এ বিষয়ে জানতে সাংবাদিকরা হারবাংস্থ বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্যের বনবিট কর্মকর্তার কার্যালয়ে গেলে বিট কর্মকর্তার দেখা মেলেনি। তবে বিট কর্মকর্তার অনুপস্থিতিতে সেখানে থাকা এক ফরেষ্ট গার্ডের কাছে এসব বিষয়ে জানতে চাইলে প্রথমে তিনি এ জায়গা বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্যের নয় দাবী করেন এবং চাঁদা নেওয়ার বিষয়টি ও অস্বীকার করেন। পরে সাংবাদিকদের গোপন ক্যামেরায় ধারণ করা ভিডিও এবং বনভূমি দখলকারীদের বক্তব্য তাকে দেখালে তিনি বলেন এ বিষয়ে বিটকর্মকর্তার সাথে কথা বলতে। পরে হারবাং বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্যের বনবিট কর্মকর্তা আজহার রহমানের মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন করার পরও তিনি ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য নেওয়ার জন্য ফোন রিসিভ করার অনুরোধ জানিয়ে নাম্বারে পাঠানো হয় একটি ক্ষুদে বার্তাও। এরপরও বেশ কয়েকবার ফোন দিলেও তিনি ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।
উল্লেখ্যঃ বনভূমি দখলবাজদের সাথে কথা বলার সময় গোপন ক্যামেরায় ধারণ করা ভিডিওটি প্রতিবেদকের কাছে সংরক্ষিত আছে। সেখানে স্পষ্ট ভাষায় উল্লেখ আছে হারবাং বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্যের বনবিট কর্মকর্তাকে চাঁদা দিয়েই তারা বনভূমি দখল করছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..