শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ০৭:৩৩ অপরাহ্ন
নোটিশ ::
বাংলাদেশ সারাবেলা ডটকমে আপনাদের স্বাগতম। সারাদেশের জেলা,উপজেলা ও বিশ্ববিদ্যালয়ে  প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে, আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন - ০১৭৯৭-২৮১৪২৮ নাম্বারে
সংবাদ শিরোনাম ::
আটঘরিয়ায় চতুর্থ কাব ক্যাম্পুরীর উদ্বোধন প্রথমবারের মতো সংসদে বক্তব্য রাখলেন সোলায়মান সেলিম বায়োমেট্রিক হাজিরা মেশিন থাকলেও নেই শিক্ষার্থীদের হাজিরা ভেটেরিনারি অনুষদে সেশনজট মোকাবিলাই হবে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ- নবনিযুক্ত ডিন রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের প্রথম কমিটির নেতৃত্বে ডলফিন-তুহিন  শহীদ আব্দুল খালেক উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ হকৃবি’তে যথাযথ মর্যাদায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত যবিপ্রবিতে নওগাঁ জেলা অ্যাসোসিয়েশনের বার্ষিক মিলনমেলা কয়রাবাড়ি বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত ববিতে যথাযথ মর্যাদায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপিত ভাষা আন্দোলন বাঙালি জাতীয়তাবাদের ভিত্তি রচনা করেছিল– রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য   চকরিয়ায় শতকোটি টাকা মূল্যের বনভূমি দখল করে আ.লীগ নেতার স্থাপনা নির্মাণ; নিরব সংশ্লিষ্ট বনবিভাগ নড়াইলের মেধাবী শিক্ষার্থী রাকিবুলের পাশে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ শাখা ছাত্রলীগ কয়রাবাড়ি বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত শিক্ষার্থী নির্যাতনের ঘটনায় উত্তাল যবিপ্রবি, উপাচার্য কে ঘেরাও  যবিপ্রবির কিশোরগঞ্জ জেলা আসোসিয়েশন এর নেতৃত্বে রাহাত ও আবিদ যবিপ্রবি শিক্ষার্থীকে নির্যাতন, অভিযোগের তীর ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে সহায়তা তহবিল গঠন করে দরিদ্র শিক্ষার্থীদের মাঝে স্কুল ড্রেস বিতরণ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে চিত্রাংকন এবং রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন শীতবস্ত্র নিয়ে ছিন্নমুল মানুষদের পাশে পাবিপ্রবি ছাত্রলীগ গণিত ও বিজ্ঞান বিষয়ের উপর আন্তঃ উপজেলা (আটঘরিয়া) প্রতিযোগিতা মূলক মূল্যায়ন অনুষ্ঠিত কয়রাবাড়ি বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি বর্ণাঢ্য আয়োজনে যবিপ্রবিতে সরস্বতী পূজা উদযাপিত রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশেষ প্রেম বিতর্ক অনুষ্ঠিত  ঋতুরাজ বসন্তকে স্বাগত জানিয়েছে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়

বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দিতে শিক্ষার্থীদের ভার্চুয়াল আন্দোলন

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৩ আগস্ট, ২০২০
  • ৬৮৪ ০০০ বার

এবার বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খুলে দিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরব হয়েছে শিক্ষার্থীরা।কিছুদিন ধরে ‘করোনার মধ্যে এইচএসসি নয়’ শিরোনামে ভার্চুয়াল আন্দোলন চললে তা নিয়ে প্রথম বাংলাদেশ সারাবেলা সংবাদ প্রকাশের পর দৃষ্টি কাড়ে সকলের।পরবর্তীতে প্রথম সারির ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় উঠে আসে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের বিষয়টি।
এবার বিশ্ববিদ্যালয় সেপ্টেম্বরের মধ্যে খুলে দিতে ফেইসবুকে গ্রুপ খুলে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা তুলে ধরছেন তাদের যুক্তি,জানাচ্ছেন সেপ্টেম্বরের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেয়ার দাবি।
গ্রুপের বিভিন্ন জনের সাথে বাংলাদেশ সারাবেলা’র কথা হয়।তাদের যুক্তি গুলো তুলে ধরছে বাংলাদেশ সারাবেলা।
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের হৃদয় সরকার বলেন-
“গনপরিবহনে ছোট যায়গায় ৪০-৫০ জন যাত্রী উঠতে পারলে,বিশ্ববিদ্যালয় চলবেনা কেন?
গনপরিবহন চালু,আজ প্রায় ৩মাসের কাছাকাছি । গণসংক্রমন হওয়ার থাকলে,গত ৩মাসে ভয়াবহ পরিস্থিতি হতো। কিন্তু পরিস্থিতি এখনো স্বাভাবিক।
হাট,বাজার,পার্ক,ভ্রমন,বিনোদন কেন্দ্র খোলা থাকতে পারলে,শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা থাকতে পারে।
ইতালি,চীন,আমেরিকাতে অনেক অঞ্চলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিয়েছে। তারা স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্লাস করছে।
আগামী কয়েকমাস বিশ্ববিদ্যালয় না খুললে, শিক্ষার্থীরা বাসায় বসে হতাশাগ্রস্থ হবে। তাদের মাঝে আত্বহত্যা প্রবনতা বাড়বে।”

এ বিষয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর মজুমদার অন্তু বলেন বলেন “করোনায় স্বাস্থ্যঝুকিতে সবথেকে বেশী ৪০/৫০ বছর বয়সের মানুষজন।
আর সব থেকে কম ১৮-৩০ বছরের মানুষজন।
কিন্তু বয়স্করা সবাই ই কাজের জন্য বাইরে যাচ্ছে কিন্তু যাদের ঝুঁকি কম তাদের শুধু শুধু আটকে রাখা হচ্ছে।”
শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ইসরাত জাহান বলেন “বিশ্ববিদ্যালয় না খোলার কারনে মানসিক ডিপ্রেশনে চলে যাচ্ছে অনেক ছাত্র ছাত্রী।ফলে আত্নহত্যার প্রবনতা বাড়ছে।”

ইডেন কলেজের শিক্ষার্থী খাদিজাতুল সুরাইয়া মুন বলেন “স্কুল অফ রেখে অন্তত ভার্সিটি খুলা উচিত।নইলে চাকরির বয়স বাড়ানো উচিত।”
বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বনলতা সেন বলেন “আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানর বন্ধ রাখার মূল কারণ হল করোনা পরিস্থিতিকে স্বাভাবিক করা। কিন্তু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ব্যতীত বাংলাদেশের প্রতিটা সেক্টর স্বাভাবিক ভাবেই চলছে যার ফলে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসার কোন সম্ভাবনা নেই। আর ভ্যাকসিনের আশায় বসে থাকলে নিশ্চয়ই আগামী বছরের মাঝামাঝি পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে হবে। সেটা কি সম্ভব?? তাছাড়া আমরা যারা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া তাদের রোগ প্রতিরোধ সক্ষমতা রয়েছে। বারবার আবাসিক হলের কথা আসছে। তাহলে আমরা কি গার্মেন্টসে যারা কাজ করে তাদের চেয়ে নিশ্চয়ই বেশি গাদাগাদি করে থাকি না।”

নিউজটি শেয়ার করুন..

2 responses to “বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দিতে শিক্ষার্থীদের ভার্চুয়াল আন্দোলন”

  1. ফাহিম says:

    বন্ধ থাকুক! ২০২১ থেকে শুরু করা হোউক!
    চাই না এই সময়ে খোলা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান!!

  2. কাজী বাপ্পী রহমান says:

    এভাবে বন্ধ থাকলে আমরা সবাই পাগল হয়ে যাবো। করোনা কবে যাবে তাতো আমরা নিশ্চিত না, তাই এভাবে অপেক্ষা করার কোনো মানেই হয় না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..