সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৬:৪৮ পূর্বাহ্ন
নোটিশ ::
বাংলাদেশ সারাবেলা ডটকমে আপনাদের স্বাগতম। সারাদেশের জেলা,উপজেলা ও বিশ্ববিদ্যালয়ে  প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে, আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন - ০১৭৯৭-২৮১৪২৮ নাম্বারে
সংবাদ শিরোনাম ::
কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় মীনা দিবস ২০২২ উদযাপন বেনাপোল সীমান্তে ইউএস ডলার সহ দুই যাত্রী আটক শার্শায় সাবেক ইউপি সদস্যের বসত বাড়ীতে দূর্বৃত্তের হামলা উৎসব মুখর পরিবেশে ডিএসটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন শার্শায় প্রেমিকের সাথে কিশোরী আটকের পর গণধর্ষনের অভিযোগে গ্রেফতার ২ পটুয়াখালী জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন মুরাদিয়ার হাসান শিকদার শার্শার গোগা সীমান্ত থেকে ১৫ পিস সোনার বারসহ পাচারকারী আটক বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রফেসর সিদ্দিকুর রহমানের শ্রদ্ধা চকরিয়ায় উপজেলা প্রশাসনের উচ্ছেদ অভিযান চকরিয়ায় স্বামীর লাথির আঘাতে মারা গেছেন স্ত্রী, পুলিশের হাতে আটক স্বামী বেনাপোলে মাদকসহ পাচারকারী আটক বেনাপোল সীমান্তে অজ্ঞাত যুবকের মরদেহ উদ্ধার দুমকিতে দলিল লেখক সমিতির সভাপতি রুহুল, সম্পাদক মেহেদী ন্যাশনাল ক্যাম্পাস জার্নালিজম ফেস্ট-২০২২ এর লোগো উন্মোচন পবিপ্রবিতে কৃষি গুচ্ছের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত পবিপ্রবিতে ছাত্রলীগের সাধারণ -সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য্য এর জন্মদিন পালিত লেখক ভট্টাচার্যের জন্মদিনে ফরিদুল ইসলাম বাবুর উদ্যোগে দোয়া ও বিশেষ প্রার্থনা শার্শার কায়বা বাইকোলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে নিয়োগ বানিজ্যের অভিযোগ সভাপতির বিরুদ্ধে চকরিয়ায় বনবিভাগের জায়গা ও মাতামুহুরি নদী থেকে অবৈধ বালি উত্তোলন কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় রকির উপর হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ মানববন্ধন বশেমুরবিপ্রবিতে মেলবুর বিশেষ কর্মশালা অনুষ্ঠিত কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে রাস্তা অবরূদ্ধ করে রাখায় জনদূর্ভোগ দুর্গাপূজা উপলক্ষে বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারতে গেলো ইলিশের প্রথম চালান চকরিয়ায় আলোচিত শফি আলম হত্যায় জড়িতদের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন চকরিয়ায় আহমদ হাসান মেমোরিয়াল হাসপাতালের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন

ভালোবাসার আরেক নাম “মা”

তানজিলা আক্তার লিজা, ডিআইইউ প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৯ মে, ২০২১
  • ৩০৮ ০০০ বার

নাম আমার মিতু। পেশায় একজন ডাক্তার। রোগীর রোগ নির্ধারণ করে তাকে সেবা প্রদান করা আমার কর্তব্য। যখন এই পেশায় নিয়োজিত হয়েছি ঠিক তখনি শপথ নিয়েছি এই সেবা প্রদান যুদ্ধে সবসময় জয়ী হবো যত বাধাই আসুক না কেনো।

মানবসেবা এই ডাক্তার পেশায় আসার পর আমার এক ছোট মেয়ে আছে তাসফিয়া তাকে সময় দেওয়া আমার আর হয়ে উঠে না। অন্যান্য মায়েদের মতো সবসময় তাকে নিয়ে তার বিদ্যালয়ে যাওয়া হয় না। তার গানের ক্লাসেও না। তাকে নিয়ে বাগানে লুকোচুরি খেলাও হয় না।

তাসফিয়া : মামনি, তুমি বড্ড পচাঁ। আমাকে ভালোই বাসো না। তোমার সাথে আড়ি। আমি চলে যাবো নানু বাড়ি।

ওর নানু বাড়ি বলতে শুনা মাত্রই মনে পরে গেলো আমার শৈশবের কথা। আমার “মা” ছিলেন একজন নার্স।
রোগীদের ঔষধ খাওয়া থেকে শুরু করে তাদের শীঘ্রই সেরে উঠার পিছনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা এই পেশায়(নার্স) যারা জড়িত তাদের।।
তাসফিয়া এখন আমাকে নিয়ে যা অভিযোগ করে। আমি তো এর থেকেও বেশি অভিযোগ তুলে ধরতাম শৈশবে আমার মার কাছে।

মিতু: মা তুমি কি আমার মা নও। ভালো কি বাসো না। কেনো তুমি আমার সাথে খেলো না। কেনো আমাকে খাইয়ে দেও না। তুমি সবসময় চলে যাও তোমার হাসপাতালে। এই রকম নানান অভিযোগ ফোনে কল করে বলতাম।

আর আমার “মা” শুনতো আর হাসতো।
আর বলতো,
মা: মেয়ে আমার শুনো তুমি তো এখনো ছোট। যখন বড় হবে আমার স্বপ্ন পূরণ করে ডাক্তার হবে। তখন তুমি এই সকল প্রশ্নের উত্তর পাবে।

আমি যখন নবম শ্রেনীতে পড়ি। আমার এক প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সেই অনুষ্ঠানে আমি নাচে অংশগ্রহণ করেছিলাম।ছোট থেকেই যদি কোনো প্রোগ্রাম হতো বাবাই নিয়ে দিয়ে আসতো। সেদিন ও বাবাই নিয়ে দিয়ে আসছিল। আমি প্রোগাম শেষে বাড়ি ফিরছি হাতে এক গিফ্ট ছিলো কারন আমি নাচে দ্বিতীয় হয়েছিলাম।

আমাদের বাড়ির পথে রাস্তা পার হবার সময় এক গাড়ি আমাকে অনেক জোড়ে ধাক্কা দেওয়াই ছিটকে পরে যায়। তখন আর আমার কিছু মনে নেই কি হয়েছিল আমার। শুধু এইটুকু মনে ছিলো শেষ মূহুর্তে আমি একটা কথা বলছিলাম “মা”।

যখন জ্ঞান আসে ফিরে দেখি আমার পাশের সিটে আমার মা আর আমি তার পাশের সিটে দুজনেরই এক চোখে বেন্ডেজ।
ডাক্তার এসে বললো, ” মামনি তোমার চোখের বেন্ডেজ এখন আমরা খুলে দিবো দেখোতো তুমি সব কি দেখছো দুচোখে “?

হ্যাঁ, আমি সব দেখছি।
আর আমার মার ব্যান্ডেজ খুলা মাত্রই আমার বুজতে বাকি রইলো না আমার মা আমাকে তার চোখ দিয়ে আবার নতুন ভাবে পৃথিবী দেখার সুযোগ করে দিয়েছে।

সেদিনের পর থেকে মা আর তার পেশায় যায় নি। আমাকে সময় দিয়েছে। আমার পরে আর তার বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ ছিলো না।
এখন নিজের মেয়ে যখন অভিযোগ তুলে তখন আমিও আমার মায়ের মতো হেসে বলি।
মামনি, সকল প্রশ্নের উত্তর পাবে বড় হলে।

মা, হক গৃহিণী, ডাক্তার, পাইলট, সাংবাদিক, উকিল যাই হক না কেনো সব মায়ের ভালোবাসা এক। শুধু সময় পার্থক্য, ভালোবাসার নয়। মা হচ্ছেন একজন নারী, যিনি গর্ভধারণ, সন্তানের জন্ম তথা সন্তানকে বড় করে তোলেন – তিনিই অভিভাবকের ভূমিকা পালনে সক্ষম ও মা হিসেবে সর্বত্র পরিচিত।
মা ছাড়া আমাদের জীবনটাও এক মুহুর্ত কল্পনা করা যায় না।

লেখকঃ তানজিলা আক্তার লিজা,
শিক্ষার্থী,ফার্মেসি বিভাগ, ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি। 

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..