বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ০৩:৫৭ অপরাহ্ন
নোটিশ ::
বাংলাদেশ সারাবেলা ডটকমে আপনাদের স্বাগতম। সারাদেশের জেলা,উপজেলা ও বিশ্ববিদ্যালয়ে  প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে, আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন - ০১৭৯৭-২৮১৪২৮ নাম্বারে
সংবাদ শিরোনাম ::
পাবনা ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার উদ্যোগে দাখিল পরীক্ষায় উত্তীর্ণ কৃতি ছাত্রদের সম্বর্ধনা অনুষ্ঠিত পাবনায় পানিতে ডুবে ১২ বছরের কিশোরের মৃত্যু রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে ফটোগ্রাফি সোসাইটির নতুন কমিটি গঠন  দুর্নীতি প্রতিরোধ বিষয়ক বিতর্ক প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন কয়রাবাড়ী বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়  পাবনায় প্রথমবারের মত আয়োজিত হতে যাচ্ছে ক্যাট শো প্রতিযোগিতা ঈশ্বরদীতে বুড়িমারী এক্সপ্রেস ট্রেন লাইনচ্যুত; তদন্ত কমিটি গঠন হায়দারপুরে এক রাতে ১৫ টি গরু চুরি জামিনে মুক্তি পেলেন সাবেক সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলাম রবীন্দ্র জয়ন্তীর কেন্দ্রীয় কর্মসূচিতে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের অংশগ্রহণ রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে ইনোভেশন প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত নোবিপ্রবি সায়েন্স ক্লাবের নেতৃত্বে দেওয়ান—শাওন ব্যাগ ভর্তি টাকা সহ সুজানগর উপজেলা নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থী আটক কক্সবাজার জেলায় ১০ম বারের মতো শ্রেষ্ঠ ওয়ারেন্ট তামিলকারি অফিসার মহসিন, শ্রেষ্ঠ অস্ত্র উদ্ধারকারী সোলায়মান যবিপ্রবিতে দুই দিনব্যাপী শুরু হতে যাচ্ছে বৈশাখী মেলা ও লোকসংস্কৃতি উৎসব চকরিয়ার হারবাংয়ে হাতি মারার বৈদ্যুতিক ফাঁদে জড়িয়ে কৃষকের মৃত্যু শহীদ এম মনসুর আলী কলেজের প্রতিষ্ঠাতা প্রিন্সিপাল আর নেই আটঘরিয়া উপজেলা নির্বাচন ২৯ মে, চেয়ারম্যান পদে লড়বেন ৩ জন রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে দৈনিক সমকালে অপপ্রচারের বিরুদ্ধে  শিক্ষক সমিতির প্রতিবাদ বর্ণাঢ্য আয়োজনে হকৃবিতে প্রথম ‘বিশ্ব ভেটেরিনারি দিবস-২০২৪ উদযাপিত চকরিয়ায় জেলের ছদ্মবেশে অভিযান; ১২ লাখ ৫০ হাজার পিস ইয়াবা জব্দ আটঘরিয়ায় ৩ কৃষকের বাড়িতে অগ্নিকাণ্ডে ১৫ লক্ষাধিক টাকার মালামাল ভস্মীভূত বাউরেসের কৃষি সাংবাদিকতা পুরস্কার পেলেন আবুল বাশার মিরাজ গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা আয়োজনে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বয় সভা আটঘরিয়ার একাডেমিক সুপারভাইজারের বিদায় সংবর্ধনা চকরিয়ায় মহাসড়কে ব্যারিকেড দিয়ে গণ-ডাকাতি, গুলি বিনিময়, পুলিশসহ গুলিবিদ্ধ ২

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স আছে, সেবা নেই

মোঃ কামাল উদ্দিন, কক্সবাজার প্রতিনিধি:
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৯ মে, ২০২৩
  • ৯৮ ০০০ বার

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স আছে, সেবা নেই। চকরিয়ার সরকারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এখন বাণিজ্যিক হাসপাতালগুলোর এজেন্ট হিসেবে রুপ নিয়েছে। একটু এদিক থেকে ওদিক হলেই সোঁজা রেফার করা হয় চকরিয়া ম্যাক্স হাসপাতাল বা অন্যান্য বাণিজ্যিক হাসপাতালগুলোতে। চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যে ডাক্তাররা আছে তারা কী ম্যাক্স হাসপাতালের ডাক্তারগুলোর চাইতে কোন অংশে কম অভিজ্ঞ এমন প্রশ্ন জনসাধারণের মনে? নাকি কমিশনের আশায় বাণিজ্যিক মনোভাব থেকে এরকম করা হয় এমন প্রশ্নের সঠিক উত্তর খুঁজে পেতে সরেজমিন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শন করেন প্রতিবেদক। সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স যেন অনিয়ম দূর্নীতির আঁতুড় ঘরে পরিণত হয়েছে। উপজেলার ১৮টি ইউনিয়ন ও একটি ১ম শ্রেণীর পৌরসভার নাগরিকদের চিকিৎসা সেবা গ্রহণের একমাত্র সরকারি হাসপাতাল এটি। কিন্তু, এ হাসপাতালটিতে চিকিৎসা সেবা নিতে আসা রোগীদের পদে পদে হয়রানি করা হচ্ছে। সেবাপ্রার্থীদের সাথে করা হচ্ছে জঘন্য নোংরা আচরণ। এমনকি আশ্চর্যজনক হলেও সত্যি যে কয়েকজন রোগীর স্বজনের সাথে কথা বলে জানা যায়, স্বয়ং জরুরী বিভাগে কর্তব্যরত ডাক্তার নাম মাত্র চিকিৎসা সেবা দিয়ে রোগীর উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজন জানিয়ে চকরিয়া ম্যাক্স হাসপাতাল থেকে উন্নত চিকিৎসা নেওয়ার জন্য বলে দেন। এদিকে, প্রতিবেদক এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য পাওয়ার পর পুরোদমে তদন্তে নামে এবং স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটির অনিয়ম ও দূর্নীতির বিষয়ে ইসমাইল হোসেন ধলু নামক এক শ্রমিক নেতা প্রতিবেদককে জানান, সম্প্রতি চকরিয়া পৌরসভা ৩নং ওয়ার্ডে একটি মারামারির ঘটনায় শাওন নামের এক যুবক ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হয়। পরে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হলে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে ম্যাক্স হাসপাতালে গিয়ে অপারেশন করাতে বলেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। তাদের কথা মতো ম্যাক্স হাসপাতালে গিয়ে ডাঃ জন বাহাদুর ত্রিপুরার মাধ্যমে অপারেশন দেওয়ার কিছুদিনের মধ্যে ক্ষতস্থানে পচন ধরে। বর্তমানে সে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। প্রকৃতপক্ষে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স প্রাইভেট সেবা প্রতিষ্টান ম্যাক্স হাসপাতালের এজেন্ট হিসেবেই কাজ করছে। আমি ব্যক্তিগতভাবে তাদের এমন কর্মকান্ডের নিন্দা জানাচ্ছি। অপরদিকে চকরিয়া উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কাউছার উদ্দিন কছির বলেন, গত কিছুদিন আগে তার বউয়ের আপন বড় ভাই মোঃ ফোরকান এর এপেন্ডিসাইটিসের কারণে তীব্র ব্যথা উঠলে দ্রুত চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে নেওয়ার পর কোন ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা ছাড়াই একের পর এক ইনজেকশন পুষ করতে থাকে। এক পর্যায়ে তার শারীরিক অবস্থার মারাত্মক অবনতি ঘটলে কোন প্রকার রেফার সার্টিফিকেট ছাড়াই কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য বলা হয়। তবে ভাগ্যের নির্মম পরিহাস ফোরকান ভাইকে কক্সবাজার নেওয়ার আগেই মৃত্যুবরণ করেন। তার এ মৃত্যুর পিছনে একমাত্র দায়ী চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত ৩ জন ডাক্তার। তারা হলেন, ডা. শাওন সিনহা, ডা. আবু জাফর সাদেক ও ডা. সাকিব আল রাধিকা। তাদের তত্ত্বাবধানেই প্রয়াত ফোরকান ভাইয়ের চিকিৎসা চলেছিলো। কিন্তু, তাদের চিকিৎসায় অবহেলা ও রোগ না বুঝে ভূল চিকিৎসার কারণে তিনি অকালে মারা গেছেন। এদিকে, ভুক্তভোগীদের এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা শোভন দত্তের কাছে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি মুঠোফোনে বক্তব্য দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন এবং প্রতিবেদককে সরাসরি অফিসে যাওয়ার আমন্ত্রণ জানান এবং তিনি অপারেশন থিয়েটারে আছেন বলে ফোন কেটে দেন। অপরদিকে, কক্সবাজার জেলা সিভিল সার্জন ডা. মো. মাহবুবুর রহমান এর কাছে এবিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এমন কিছু যদি ঘটে থাকে তাহলে ভূক্তভোগীদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে যারা ভূক্তভোগী তাদের থেকে কক্সবাজার সিভিল সার্জন বরাবর আগে লিখিত অভিযোগ দিতে হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..